শিল্পসংস্কৃতি-৩ - পৃষ্ঠা নং-৬

প্রথমে রামদিয়া কলেজ, এরপর হরগঙ্গা কলেজ এবং পরে ফরিদপুর রাজেন্দ্র কলেজে বাংলা বিভাগে অধ্যাপনা করেন। রাজেন্দ্র কলেজে থাকাকালীন তিনি তৎকালীন রেডিও পাকিস্তানের আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে যোগদান করেন। তিনি দীর্ঘদিন বাংলাদেশ বেতারের উচ্চপদে চাকরি করে অবসর গ্রহণ করেছেন। তিনি একজন গীতিকার, কবি ও সাহিত্যিক। তাঁর রচিত পুস্তক ‘ও নয়ন পাখিরে’ (গীতিগ্রন্থ), ‘অন্ধকার তুবও’, ‘চতুষ্কোণের কিয়দংশ’ (সমালোচনা), ‘নয়ন সম্মুখে’ কবিতা গ্রন্থ পাঠক মহলে সমাদৃত। তিনি অকৃতদার।

বেগম রাজিয়া খান

রাজবাড়ি জেলার খানখানাপুর (ফুলতলা) ঐতিহাসিক স্থান। খানখানাপুরের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ তমিজ উদ্দিন খান ও তাঁর পরিবার বিভিন্ন কারণে বিখ্যাত। তমিজউদ্দিন খানের কন্যা বেগম রাজিয়া খান দেশের একজন বিশিষ্ট সাহিত্যিক। ‘বটতলার উপন্যাস’, ‘আবর্ত নাটক’ তাঁর উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ।

 

 

সানজিদা খাতুন

প্রখ্যাত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী ও রবীন্দ্র গবেষক সানজিদা খাতুন পাংশার কাজী পরিবারে ১৯৩৩ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ড. কাজী মোতাহার হোসেনের কন্যা। তাঁর লেখা উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ ‘সত্যেন্দ্র কাব্য পরিচয়’, ‘রবিন্দ্রনাথের হাতে হাত রেখে’, ‘ধ্বনির কথা আবৃত্তির কথা’।

 

 

প্রফেসর ড. ফকীর আব্দুর রশীদ

রাজবাড়ি জেলার সাহিত্য কর্মে ড. ফকীর আব্দুর রশীদ বিশেষ ব্যক্তিত্ব। ১৯৯৮ সালে বাংলা একাডেমী প্রকাশিত দেশের সাহিত্য ব্যক্তিদের নামের তালিকায় তিনি তার সাহিত্য কর্ম দ্বারা স্থান করে নিয়েছেন। তাঁর সাহিত্যকর্ম বিভিন্নমূখী। তিনি ষাট দশকে প্রথমে রাজবাড়ি থেকে প্রকাশিত পাক্ষিক ‘চন্দনা’ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। ড. ফকীর আব্দুর রশীদ-এর জন্মস্থান পদমদি গ্রামে। তিনি একাধারে শিক্ষক, সাহিত্যিক, কবি, গবেষক। তাঁর রচিত ‘সুফি দর্শন’ দেশে বিশেষভাবে সমাদৃত। গ্রন্থের সংখ্যা দশেরও অধিক। তিনি ‍সুফি দর্শনের উপর গবেষণার জন্য পিএইচডি ডিগ্রি প্রাপ্ত হন। তিনি মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। ড. ফকীর আব্দুর রশীদ বর্তমানে বাংলা একাডেমী কর্তৃক বিভিন্ন জেলার মুক্তিযুদ্ধের ইতিাহস রচনা প্রকল্পের ‘রাজবাড়ি জেলার মুক্তিযুদ্ধে’র ইতিহাস রচনায় দায়িত্ব প্রাপ্ত লেখক।

প্রফেসর শংকর চন্দ্র সিনহা

প্রফেসর শংকর চন্দ্র সিনহা একজন শিক্ষাবিদ হয়েও সাহিত্য সাধনা তাঁর নিত্যকর্ম। শংকর চন্দ্র সিনহার অসংখ্য লেখা ম্যাগাজিন, পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। তিনি গান, কবিতা, প্রবন্ধ লিখে থাকেন। গান রচনায় তাঁর মেধা প্রশংসনীয়। তার রচিত ‘বাণী বিচিত্রা’ বিভিন্ন মহলে ভূয়সী প্রশংসা পায়। তিনি একজন নাট্যকর্মী। তার লেখা গান কবিতা নিয়ে একটি পুস্তক মুদ্রিত হতে যাচ্ছে। বর্তমান তিনি ‘সনাক’ এর সভাপতি। সনাকের পক্ষ থেকে তিনি মালয়েশিয়ায় গমন করেন। তিনি বোয়ালমারী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন।

 

Additional information