লোক ঐতিহ্য

রাজবাড়ি মহিলা পরিষদ

নারীর অধিকার সংরক্ষণ, নারী প্রগতি, চেতনা বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাজবাড়ি মহিলা পরিষদ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। মহিলা পরিষদের মাধ্যমে বিভিন্ন সময় জাতীয় পর্যায়ের নারী নেতৃত্বে সেমিনার, আলোচনার মাধ্যমে রাজবাড়ির নারী সমাজের অগ্রায়ণকে ত্বরান্বিত করছে। ১৯৮৬ সালে শামসুন্নাহার চৌধুরীকে আহবায়ক করে মহিলা পরিষদ গঠিত হয়। বর্তমান সভানেত্রী নারী জাগরণের নিবেদিতপ্রাণ অ্যাডভোকেট দেবাহুতি চক্রবর্তী। সেক্রেটারী পদে আছেন আর এক নারী প্রগতির প্রতীক শামসুন্নাহার চৌধুরী। আরো সংশিল্প আছেন নারী জাগরণ, সমাজসচেতন অতি পরিচিত হেনা রহমান, সুলতানা আপা, জাহানারা ইসলাম। মহিলা পরিষদের সদস্য সংখ্যা তিন সহস্রাধিক। ব্যক্তিক প্রচেষ্টা ও সরকারি অনুদানে পরিচালিত মহিলা পরিষদ সফলতার সাথে কর্তব্য পালন করে যাচ্ছে।

নোশিন স্মৃতি চিকিৎসা সহায়তা সংস্থা

ফুল ফোটে কাননে, তারা ফোটে গগনে, নোশিন ফুটেছিল স্বপনে।

কখন মরিচীকা হাওয়ায় ভরে

কথা হয় নিত্য সংসারে

কে আমি বলত বাবা?

তুমি নোশিন

ঐ দেখ বাবা

কত ফুল, কত পাখি, কত প্রজাপতি ওড়ে

আকাশের রং কত নীল, দেখ তারারা কতদূরে !

ওরাইত আমার খেলার সাথী ছিল।

ওসব কী বল

তুমি আমার নোশিন।

আমি তোমার নোশিন

পুতুল, খেলনা যা কিছু পাও------

বাজার থেকে আনবে কিন্তু।

কেন নয়?

শোন বাবা

Additional information