লোক ঐতিহ্য - পৃষ্ঠা নং-১৪

লোকসংস্কার ও গণনাশাস্ত্র : মানবজাতির সৌভাগ্য এমন যে, তারা অতীত স্মরণ করতে পারে আর দুর্ভাগ্য যে, তারা ভবিষ্যত জানে না। এ সীমাবদ্ধতা থেকেই যাত্রার শুভাশুভ, ভবিষ্যৎ ভাগ্য, প্রাকৃতিক ঘটনা, দুর্ঘটনা জানার জন্য নানা কৌশল করেছে। এগুলি লোকসংস্কার ও গণনাশাস্ত্র হিসেবে বর্ণনা করা যায়। রাজবাড়িতে এরুপ কয়েকজন জ্যোতিষী রয়েছে।

জ্যোতিষবিদ্যা : জ্যোতিষবিদ্যা গ্রহ নক্ষত্র বিষয়ে পঠন পাঠনের শাস্ত্র। আকাশের একটা অঞ্চলের তারাকে বিভিন্ন নামে চিহ্নিত করা হয় যাকে ‘জোডিয়াক’ বলে। এই গ্রহ নক্ষত্রের প্রভাব মানুষের উপর থাকে। জন্ম তিথি গণনা করে ভবিষ্যৎ, অতীত গণনা করা হয়। রাজবাড়ি জেলার নবাবপুর ইউনিয়নে খালকুলা গ্রামে একসময় অত্র অঞ্চলের জ্যোতিষশাস্ত্র কেন্দ্র ছিল। মাদরীপুরের ফতেহজঙ্গপুরে এরুপ একটি কেন্দ্রের সন্ধান পাওয়া যায়। খালকুলা গ্রামের শতানন্দ সিদ্ধান্ত বাগীষদের বংশীয় জ্যোর্তিবিদগণ খুব প্রসিদ্ধ ছিলেন। রাজবাড়ি জেলার মানুষ জ্যোতিষ বিদ্যার প্রতি বেশ আসক্ত। অনেকেই এর চর্চা করে থাকে।

অন্যান্য বিষয়ের সাহায্যে ভবিষ্যৎ নির্ণয় : মোরগের ডাক, কুকুরের কান্না, স্বপ্নের সাহায্যে, তিন সংখ্যার সাহায্যে, মৃত আত্মার সাহায্যে, হস্তরেখার সাহায্যে, তন্ত্র, মন্ত্র, ধর্মীয় সাধানার সাহায্যে ভবিষ্যৎদ্বাণী করা হয়।

যাদুবিদ্যা ও মন্ত্র

শিং মাছের বিষ ঝাড়ার মন্ত্র

শিঙ্গী বিঙ্গী চোখের মুড়ি

কোনে পামু তুই বিষের হাঁড়ি

বিষের হাঁড়ি পায়া

শিন্ধী গেল ধাইয়া

আগে যায় গুরু, পিছে যায় শিষ্য

ঝাড়িয়া ঝাড়িয়া নামাও

কেচু শিন্দীর বিষ।

পিঠা নষ্ট করা মন্ত্র

আলো পিঠা কালো পিঠা

পিঠার নিচে ফুটা ফুট

পিঠায় দিলাম ফু

পিঠা হলো গু

হাতচালানো মন্ত্র

হাতচালানি, হাতচালানি

Additional information