লোক ঐতিহ্য - পৃষ্ঠা নং-৯

তৈরি করেছিল)।                                                   ৭। আমে ধান, তেঁতুলে বান।

২। ‘নামে খায় বেলগাছির গুর’                                    ৮। পিঠা বল মিঠা বল ভাতের মতো নাই,

বেলগাছির গুরের একসময় খুব সুনাম ছিল।                        খালা বল ফুফু বল মায়ের মায়ের মতো নাই।

এ সুনাম আজও রয়েছে।                                           ৯। যদি বর্ষে ফাগুনে

৩। ‘এ কয় টাকা লাভ পেলেই আমি                                  চিনা কাওন দ্বিগুণে

বালেকান্দির ঠাকুর’---অল্পতেই তুষ্ট--                                যদি বর্ষে মাঘের শেষ

৪। ফল খেয়ে জল খায়,                                              ধন্য রাজার পূণ্য দেশ।

জম বলে আয় আয়।                                                   ----খনার বচন

৫। চৈত্র মাসে চাষ দিয়ে না, বোনে বৈশাখে                         ১০। দাঁত ওঠে নাই, কলই চাবাও

কবে সে হেমন্তের ধান্য পেয়ে থাকে                                          -----ইচড়ে পাকা

 প্রবচন

১। মাথায় বোঝা কোদালে চাষ                                        ৯। দাদার নামে আধা, বাপের নামে গাধা

যে বাঁচবে শত সে বাঁচে পঞ্চাশ                                             নিজের নামে শাহজাদা

২। গড্ডার মা’লো তোর গড়গড়াটা কই                             ১০। দুই সতীনের ঘর, খোদায় রক্ষা কর।

হালের বলদ বাঘে খেয়েছে                                           ১১। বাড়ির শোভা বাগ বাগিচা

পিঁপড়ে টানে মই।                                                          ঘরের শোভা ডোয়া,

৩। অতি বড় হয়ো না, ঝড়ে ভেঙ্গে নেবে                                 ধান কাউনে মাঠের শোভা,

অতি ছোট হইওনা ছাগলে মুড়ে খাবে।                                    রাতের শোভা শোয়া

৪। ভাবে (ভাবনায়) মরে কুরনের মা,                             ১২। আক্কেলে সকল বন্দি জালে বন্দি মাছ

আটের মানুষ শুবেন কনে? (অহেতুক ভাবনা)                          বউয়ের কাছে পুরুষ বন্দি, ছালে বন্দি গাছ।

৫। সব নদী খান খান

হড়াই নদী সাবধান

৬। পাখির মধ্যে খঞ্জন, মাছের মধ্যে রন্ধন,

নারীর মধ্যে রাধা শাড়ির মধ্যে সাদা

৭। এমনি ছাই তার উপর বাতাস।

Additional information