মুক্তিযুদ্ধে রাজবাড়ি - পৃষ্ঠা নং-৪

জনসংযোগ প্রধান

১। ডা. জলিলুর রহমান

প্রশাসনিক প্রধান

১। আব্দুল বারি মণ্ডল, সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক

২। আকরাম হোসেন, আনসার এ্যাডজুটেন্ট-তৎকালীন

৩। ও সি (তৎকালীন)

৪। শেখ জামায়েথুল্লা, সিভিল ডিফেন্স অফিসার রেলওয়ে-তৎকালীন

প্রাথমিক পর্যায়ে ডা. আসজাদ ও ডা. এসএ মালেক রাজবাড়ি জেলায় স্থানীয় প্রতিরোধবাহিনী গঠন করেন যা ‘রাজবাড়িবাহিনী’ নামে পরিচিতি হল। ‘রাজবাড়িবাহিনীর’ কমান্ডার ছিলেন ডা. আসজাদ। এ বাহিনীর প্রশিক্ষক ছিলেন আব্দুল বারি মণ্ডল। অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ, আনসার ও স্থানীয় যুবকদের নিয়ে এ বাহিনী গঠন করা হল। কাজী হেদায়েত হোসেন এবং ডা. একেএম আসজাদ ফরিদপুর জেলা প্রশাসন এবং গোয়ালন্দ মহকুমা প্রশাসন (তখন রাজবাড়িই ছিল গোয়ালন্দ মহকুমার সদর দপ্তর) থেকে কিছু অস্ত্র ও গোয়াবারুদ সংগ্রহ করতে সক্ষম হন এবং রাজবাড়িবাহিনীকে ৩০৩ রাইফেল দ্বারা সজ্জিত করেন। আওয়ামী লীগ অফিসে কাজী হেদায়েত হোসেনের নেতৃত্বে সভায় সব মতো পার্থক্য ভুলে তাঁরা ঐক্যবদ্ধ হন।

Additional information