স্মরণীয় যাঁরা-২ - পৃষ্ঠা নং-৩

একেএম শামসুদ্দোহা (বাবু মাস্টার)

রাজবাড়ি জেলার নাড়ুয়া ইউনিয়ন শিক্ষা-দীক্ষায় এবং আর্থিকভাবে এ জেলার বর্ধিষ্ণু এলাকা। ১৯৫১ সালে নাড়ুয়া লিয়াকত আলী স্মৃতি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ অঞ্চলে শিক্ষার ব্যাপক প্রসার লাভ করে। যে সমস্ত শিক্ষাবিদ শিক্ষা প্রসারের ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রেখে গেছেন তার মধ্যে মরহুম আব্দুল ওয়াজেদ, মোঃ নজরুল ইসলাম, আহম্মেদ হোসেন, মোঃ দেলোয়ার হোসেন, মোঃ জনাব আলী, মোঃ আজিজুল ইসলাম, অশ্বিনী কুমারসহ আরো অনেকের নাম স্মরণীয়। বিদ্যালয়ের অসংখ্য ছাত্রছাত্রী বর্তমানে প্রশাসক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক, রাজনীতিবিদ হিসেবে দেশ ও জাতির সেবা করে চলেছেন। এ বিদ্যালয়ের উন্নয়নসহ শিক্ষা বিস্তারে নিবেদিত প্রাণ ব্যক্তিত্ব অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক  একেএম শামসুদ্দোহ (বাবু মাস্টার)। পাটকিয়াবাড়ির এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শিক্ষাজীবনের ফাঁকে ফাঁকেই তিনি এ বিদ্যালয়ের শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করতেন। অতঃপর তিনি প্রায় ৩৫ বছর এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তাঁর প্রচেষ্টায় বিদ্যালয়টি কলেজিয়েট বিদ্যালয়ে উন্নীত হয়েছে। ছিপছিপে গড়ন, চেহারায় প্রতিভার ছাপ, পণ্ডিত, সফল শিক্ষক, বিশিষ্ট সমাজসচেতন ও দরদি মানুষ হিসেবে পরিচিত।

ডা. একেএইচএম সিরাজুল হক (মুকুল)

ডা. সিরাজুল ইসলাম এলাকায় ডা. মুকুল বলে পরিচিত একজন নিবেদিত প্রাণ চিকিৎসক। তিনি এমবিবিএস (ঢাকা), এফসিপিএস (ঢাকা), এফআরসিপি (এডিন) এফএসিসি (আমেরিকা)। ঢাকা হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের পরিচালক ছিলেন। ডা. সিরাজুল  ইসলাম হৃেোগ বিশেষজ্ঞ এবং বর্তমানে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক এবং কার্ডিওলজি বিভাগ প্রধান। তিনি পৃষ্ঠপোষক হেফা (বেথুলিয়া মাটিপাড়া), পৃষ্ঠপোষক শামসুল হক বে-সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উপদেষ্টা ডায়াবেটিকস সমিতি, রাজবাড়ি। তার নেতৃত্বে এলাকায় বিনা পারিশ্রমিকে হৃদরোগীদের চেক-আপ ও ব্যবস্থাপত্র প্রদান করা হয়। তিনি রাজবাড়ি জেলা সমিতি পরিচালনার মাধ্যমে রাজবাড়ি জেলার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের সাথে সংশ্লিষ্ট।

অ্যাডভোকেট সৈয়দ রফিকুছ সালেহীন

পাংশায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন সৈয়দ রফিকুছ সালেহীন। রাজবাড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি। আইনশাস্ত্রে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করে রাজবাড়ি বারে আইনজীবী হিসেবে যোগদান করেন। তিনি দেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগের সাথে ছাত্রজীবন থেকেই সংশ্লিষ্ট হন। সৈয়দ রফিকুছ সালেহীন মানবসেবায় নিবেদিত প্রাণ। পেশাগত হিসেবে একজন আইনজ্ঞ এবং সুবক্তা। সত্যই সুন্দর এ মর্মবাণী সৈয়দ রফিকুছ সালেহীনের নীতি। তিনি রাজবাড়ি বার এসোসিয়েশনের সভাপতি ছিলেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক হিসেবে কাজ করেছেন।

সিরাজুল মজিদ মামুন

সিরাজুল মজিদ মামুন দেশের প্রখ্যাত সংবাদপাঠক। তিনি বেতার ও টিভিতে নিয়মিত সংবাদ পাঠ করেন। সিরাজুল মজিদ মামুনের পৈত্রিক নিবাস রাজবাড়ির পাংশা থানার মাজবাড়ি গ্রামে। তিনি একজন প্রকৌশলী। 

 

Additional information